খুলনার রূপসা উপজেলার শিয়ালী গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক ভারত থেকে ফেরার পর স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা মেনে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন শেষ করার একদিন পর মারা যাওয়ায় এলাকায় আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, তার কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ শেষ হয় বুধবার (১৮ মার্চ)। এর একদিন পর শুক্রবার ভোর রাতে তিনি নিজ বাড়িতেই মারা যান। চিকিৎসকরা বলছেন, তার করোনার কোনও লক্ষণ ছিল না, তিনি হাইপার টেনশনে মারা গেছেন।  মারা যাওয়া শিক্ষকের নাম বিষ্ণু পদ বিশ্বাস (৫০)। তিনি শিয়ালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকতা করতেন।

রূপসা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. আনিসুর রহমান বলেন, ‘ওই শিক্ষক ভারত থেকে ফেরার পর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। তিনি নিজ বাড়িতেই অবস্থান করছিলেন। তিনি পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে ভারত গিয়েছিলেন। সেখান থেকে আসার পরই ১৪ দিনের কেয়ারেন্টিনে ছিলেন। শুক্রবার ভোর রাতে তিনি হঠাৎ হাইপার টেনশনের কারণে মারা যান। তিনি ডায়াবেটিসেও আক্রান্ত ছিলেন। মৃত্যুর সময় তার জ্বর, কাশি বা অন্য কোনও সমস্যা হয়নি।’ জানা গেছে, গত ৪ মার্চ ভারত থেকে রূপসার নিজ বাড়িতে আসেন ওই শিক্ষক। তার পরিবার দীর্ঘদিন ধরে ভারতে বসবাস করছে। স্থানীয়রা জানান, তার বড় ধরনের কোনও রোগ ছিল না। শুক্রবার ভোরবেলা নিজ বাড়িতেই তার মৃত্যু হয়।