মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে উলটে গেছে ক্রিকেট বিশ্বের সূচি। স্থগিত ও বাতিল হয়েছে অনেক আন্তর্জাতিক ইভেন্ট। ঝুলে আছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও। আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচি নির্ধারিত আছে। বিশ্বকাপ আয়োজন করা ‘অবাস্তব’- মন্তব্য করেছে আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারেনি ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।
বৃহস্পতিবার হঠাৎ করে ভিডিও কনফারেন্স করে আইসিসি। করোনার পর এই নিয়ে তিনবার বৈঠক করেও বিশ্বকাপ নিয়ে কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারলো না ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি। একটি সূত্র বলছে, জুলাইয়ের মধ্যবর্তী সময় পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে চায় আইসিসি। ভারতীয় দৈনিক হিন্দুস্তান টাইমস ঐ সূত্রকে উদ্ধৃত করে আরো জানিয়েছে, ‘আইসিসির সভাপতি নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়েই মূলত গতকালের বৈঠকটি হয়েছে। চেয়ারম্যান নির্বাচনের প্রক্রিয়াটি শেষ করতে চায় আইসিসি। পরের সপ্তাহ এ বিষয়টি চূড়ান্ত করবে আইসিসি’। শুধুমাত্র অস্ট্রেলিয়াই নয়, বিশ্বকাপ নিয়ে বিশ্বের অন্যান্য দেশের ক্রিকেট বোর্ডও কোন আশা দেখছে না। করোনার কারণে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনের বড়-বড় আসর স্থগিত হয়েছে। এরমধ্যে আছে, টোকিও অলিম্পিক, কোপা আমেরিকা ও ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ। কিন্তু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে সকলকে চিন্তায় রেখেছে আইসিসি। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) সঙ্গে শশাঙ্ক মনোহরের সম্পর্ক তিক্ত হওয়ায়, ইচ্ছাকৃত বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্তকে ঝুলিয়ে রেখেছে আইসিসি।
কারণ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না-হলে অক্টোবর-নভেম্বরে আইপিএলের ১৩তম আসর আয়োজন করার পরিকল্পনা করে রেখেছে বিসিসিআই। বিশ্বকাপের জন্য কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বিসিসিআই। সম্প্রচারকারী কোম্পানি চাইছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাদ দিয়ে আইপিএল হোক। কিন্তু আইসিসির এমন নাটকে ক্ষুব্ধ অন্যান্য দেশের ক্রিকেট বোর্ড।