ল্যান্ড ডিভিলপার কোম্পানি নিচু জমি ভরাট করার জন্যে প্রচুর বালি এবং মাটি ক্রয় করে থাকে। মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ এর প্রথম তফসিলে বালি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে (কোড: ২৫০৫.১০.০০)। মূল্য সংযোজন কর আইন, ১৯৯১ এর প্রথম তফসিলেও বালি অন্তর্ভুক্ত ছিল। অর্থাৎ বালির ওপর কোনো স্তরে ভ্যাট প্রযোজ্য ছিল না। বালি সরবরাহ দিলে যোগানদার সেবা হিসেবেও ভ্যাট প্রযোজ্য হবে না। কিন্তু প্রথম তফসিলে মাটি অন্তর্ভুক্ত ছিল না। তাই, এ বিষয়টি নিয়ে বেশ জটিলতা হতো। বালি বা মাটি দিয়ে কোনো স্থান ভরাট করার জন্যে টেন্ডারের মাধ্যমে কাউকে দিয়ে কাজ করিয়ে বিল পরিশোধের সময় উৎসে ভ্যাট কাটা না হলে অনেক ক্ষেত্রে অডিট আপত্তি উত্থাপন করা হতো।

এ বিষয়টির এখন স্পষ্ট সমাধান হয়েছে। এ বছর অর্থ আইন, ২০২০ এর মাধ্যমে মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ এর প্রথম তফসিলে মাটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে (কোড: ২৫০৮.৪০.০০)। এবারে বাজেটের আগে ভ্যাট ফোরাম থেকে এনবিআর-এ যে সুপারিশ প্রেরণ করা হয়েছিল তার ক্রমিক নম্বর ২৮ এ এই সুপারিশটি অন্তর্ভুক্ত ছিল। তাই, বালি এবং মাটি সরবরাহের ক্ষেত্রে এখন কোনো স্তরে ভ্যাট প্রযোজ্য হবে না। যোগানদার হিসাবেও ভ্যাট প্রযোজ্য হবে না (চলবে)। (ড. মোঃ আব্দুর রউফ, ২০.০৭.২০২০)।